Nabanita Chowdhury

আপনার আপনি ফানা হলে সে ভেদ জানা যাবে।

আপনার আপনি ফানা হলে সে ভেদ জানা যাবে। কোন নামে ডাকিলে তারে হৃদাকাশে উদয় হবে।। আরবী ভাষায় বলে আল্লাহ ফারসীতে কয় খোদাতালা। গড বলিছে যীশুর চেলা ভিন্ন দেশে ভিন্নভাবে।। মনের ভাব প্রকাশিতে ভাষার উদয় এ জগতে। মনাতীত অধরে চিনতে ভাষাবাক্য নাহি পাবে।। আল্লাহ হরি ভজন পূজন এ সকল মানুষের সৃজন। অনামক চেনায় বচন বাগেন্দ্রিয় [...]

সময় গেলে সাধন হবে না।

সময় গেলে সাধন হবে না। দিন থাকিতে তিনের সাধন কেন করলে না।। জানো না মন খালে বিলে থাকে না মীন জল শুকালে। কি হবে আর বাঁধাল দিলে, মোহনা শুকনা।। অসময়ে কৃষি করে মিছামিছি খেটে মরে। গাছ যদিও হয় বীজের জোরে, ফল ধরে না।। অমাবস্যায় পূর্নিমা হয় মহাযোগ সেই দিনে উদয়। লালন বলে তাহার সময় [...]

এমন মানব জনম আর কি হবে।

এমন মানব জনম আর কি হবে। মন যা কর ত্বরায় কর এই ভবে।। অনন্ত রূপ সৃষ্টি করলেন সাঁই শুনি মানবরূপের উত্তম কিছুই নাই। দেব দেবতাগণ করে আরাধন জন্ম নিতে মানবে।। কত ভাগ্যের ফলে না জানি পেয়েছ এই মানব তরণী। বেয়ে যাও ত্বরায় তরী সুধারায় যেন ভরা না ডোবে।। এই মানুষে হবে মাধুর্য্য ভজন তাইতে [...]

সত্য বল সুপথে চল ওরে আমার মন।

সত্য বল সুপথে চল ওরে আমার মন। সত্য সুপথ না চিনিলে পাবিনে মানুষের দরশন।। খরিদ্দার মহাজন যে জন বাটখারাতে কম তারে কসুর করবে যম। গদিয়ান মহাজন যেজন বসে কেনে প্রেমরতন।। পরের দ্রব্য পরের নারী হরণ করোনা পারে যেতে পারবে না। যতবার করিবে হরণ ততোবার হবে জনম।। লালন ফকির আসলে মিথ্যে ঘুরে বেড়ায় [...]

রাখিলেন সাঁই কূপজল করে।

রাখিলেন সাঁই কূপজল করে আন্দেলা পুকুরে।। কবে হবে সজল বরষা চেয়ে আছি সেই ভরসা। আমার এই ভগ্নদশা যাবে কতদিন পরে। এবার যদি না পাই চরণ আবার কি পরি ফ্যারে।। নদীর জল কূপজল হয় বিল বাওরে পরে রয় সাধ্য কি সে গঙ্গাতে যায় গঙ্গা না এলে পরে। জীবের তেমনি ভজন বৃথা তোমার দয়া নাই যারে।। [...]

আমারে কি রাখবেন গুরু চরণদাসী।

আমারে কি রাখবেন গুরু চরণদাসী। ইতরপনা কার্য আমার ঘটে অহর্নিশি।। জঠর যন্ত্রণা পেয়ে এসেছিলাম কড়ার দিয়ে। সে সকল গিয়াছি ভুলে ভবে তে আসি।। চিনলাম না সে গুরু কি ধন করলাম না তার সেবা সাধন। ঘুরতে বুঝি হলো রে মন আবার চুরাশি।। গুরুরূপ যার বাঁধা হৃদয় শমন বলে তার কিসের ভয়। লালন বলে মন তুই [...]